HeadLogo

মৎস্য দপ্তরে চাকুরীরত এক সরকারী কর্মচারীর দ্বারা গুরুতর আহত এক যুবক - Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা
১৬ অক্টোবর ২০২০ 
শুক্রবার   

তেলিয়ামুড়া প্রতিনিধিঃ তেলিয়ামুড়ার চাকমাঘাটের মৎস্য দপ্তরে চাকুরীরত এক সরকারী কর্মচারী নিপুল রায় (৪২) র উন্মত্ত তাণ্ডবে গুরুতর আহত হয় তেলিয়ামুড়া পুর পরিষদের অন্তর্গত গামাইবাড়ি শিবিরের ১৫ নং ওয়ার্ডের সুদীপ ধর (২৮) নামে এক যুবক। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যা রাতে তেলিয়ামুড়ার পঞ্চায়েত সমিতির হলের পাশের একটি পার্কের পেছনে নিজ বাইক দাঁড় করিয়ে ঘন কালো অন্ধকারে তেলিয়ামুড়ার চাকমাঘাটের মৎস্য দপ্তরে চাকুরীরত এক সরকারি কর্মচারী বেশ কিছুক্ষণ ধরে দাঁড়িয়ে থাকে। কিন্তু স্থানীয় এলাকাবাসীরা সেইটা বেশ কিছুক্ষণ ধরে প্রত্যক্ষ করে  ভয়ে আৎকে উঠে। 


ঠিক তখনই ঐ এলাকার সুদীপ ধর (২৮) নামে এক যুবক এই পথ দিয়ে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিল। তখন সন্ধ্যা আনুমানিক ৭ টা ৪০ মিনিট। তখন গভীর অন্ধকারে ঐ সরকারী কর্মচারী নিপুল রায় (৪২)-কে বাইক নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখলে তাকে  জিজ্ঞেস করা হলে, প্রথমে শুধু শুধুই ঐ নিপুল রায় তাদের বিশ্রী ভাষা প্রয়োগে গালিগালাজ করতে থাকে। যা সভ্য সমাজে কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। তখন আচমকাই দু-জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। 


কিন্তু এখানেই শেষ নয়, একসময় পরিস্থিতি এমন জায়গায় গিয়ে পৌঁছুয় যে ঐ সরকারী কর্মচারী সঙ্গে থাকা নিজ মোটর সাইকেলের ব্যাগ থেকে একটি ধারালো অস্ত্র অর্থাৎ লোহার হাতুড়ি বের করে  সুদীপ ধর (২৮) নামে ঐ যুবকের মাথায় ও মুখমন্ডলে সজোরে আঘাত করে। এতে সাথে সাথেই রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ঐ যুবক। চিৎকার চেঁচামেচিতে স্থানীয় এলাকাবাসীরা ছুটে এসে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে থাকা গুরুতর আহত  যুবককে আর কাল বিলম্ব না করে সেখান থেকে উদ্ধার করে তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। পাশাপাশি অপরদিকে স্থানীয় এলাকাবাসীরা মিলে উন্মত্ত তান্ডবে জর্জরিত মৎস্য দপ্তরে চাকুরীরত ঐ সরকারী কর্মচারী নিপুল রায়-কে আটক করে রাখে। 


যদিও ঐ সময়ও  নিপুল রায় সকলকেই আরও বিশ্রী বিশ্রী ভাষায় গালি-গালাজ করতে থাকে বলে অভিযোগ। বর্তমানে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা যুবক সুদীপ ধরের চিকিৎসা চলছে তেলিয়ামুড়া মহকুমা হাসপাতালে। আর এইদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান তেলিয়ামুড়া থানার পুলিশবাহিনী। পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ রাস্তায় পড়ে থাকা সরকারী কর্মচারীর বাইক সহ  ঐ  নিপুল রায়-কে (৪২) আটক করে তেলিয়ামুড়া থানায় নিয়ে আসে। সন্ধ্যারাতে এই ঘটনার জের ধরে তেলিয়ামুড়া থানার পুলিশ এই ঘটনার তদন্তে নেমে একটি মামলা হাতে নিয়েছে। তবে এই ঘটনার আসল রহস্য পুলিশি তদন্তের মাধ্যমেই বেড়িয়ে আসবে বলে মনে করছে বুদ্ধিজীবীরা।

কোন মন্তব্য নেই