HeadLogo

পেনডামিক আইন লঙ্ঘনে ধর্মনগরে ৮ কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে মামলা - Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা
৩১ আগষ্ট ২০২০
সোমবার 

ধর্মনগর প্রতিনিধিঃ রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা প্রাক্তন কংগ্রেস প্রদেশ সভাপতি বীরজিৎ সিনহার উপর আক্রমণের প্রতিবাদে গোটা রাজ্যেই চলছে কংগ্রেসের বিক্ষোভ আন্দোলন। শুক্রবার ধর্মনগরেও কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকেরা রাজ্যের শাসকদল বিজেপির বিরুদ্ধে ধিক্কার জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল সংগঠিত করেছিল। কংগ্রেসের অভিযোগ ছিল বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই বীরজিৎ সিনহার উপর আক্রমণ করেছে। 


এরি প্রতিবাদে ছিল শুক্রবারের ধর্মনগরে কংগ্রেসের বিক্ষোভ মিছিল।কিন্তু মিছিলের ছিলোনা কোন অনুমতি। মিছিলের অনুমতি না থাকায় কংগ্রেস ভবন থেকে মিছিলটি বের হতেই ধর্মনগর থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ ব্যারিকেড করে মিছিল আটকে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু বিক্ষোব্ধ কংগ্রেস কর্মীরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে মিছিল নিয়ে এগিয়ে যায় শহরের দিকে।পুনরায় ধর্মনগর মহকুমা পুলিশ আধিকারিকের নেতৃত্বে ব্যাপক  পুলিশ বাহিনীর সাহায্যে মিছিল আটকানো হয়। 


পরপর দু-তিনবার পুলিশ ও কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ধস্তাধস্তিতে দুপক্ষেরই বেশ কয়েকজন আহত হয়। পুলিশের পক্ষে অভিযোগ তুলে বলা হয়। কংগ্রেস কর্মীদের টানাহ্যাঁচড়ায় বেশ কিছু কর্তব্যরত পুলিশ কর্মী নেম প্লেট ও পোষাক ছিড়ে যায়। ফলে শুক্রবার রাতেই আইন অমান্য কারি আটজন কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত  মামলা গ্রহন করলো ধর্মনগর থানা কতৃপক্ষ। 


জানা গেছে এই মামলায় ধর্মনগর ব্লক কংগ্রেস সভাপতি পরিমল চক্রবর্তী ও উত্তর জেলা  যুব কংগ্রেস সভাপতি নিরুপম দে নামসহ বাকিরা হলেন রুপময় চক্রবর্তী, শুভ্র রায়, প্রাঞ্জল রায়, বেশ মালাকার, দীগ্বিজয় চক্রবর্তী, বিধান রায়। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮/৩৫৩/২৭০/৩৪ আই পিসি ও ০৩ এপাডেমিক ডিজিজ আইনে মামলা গ্রহন করা হয়েছে। এই ঘটনায় ধর্মনগরের কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের মধ্যে পুনরায় চাপা ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।




কোন মন্তব্য নেই