HeadLogo

ধর্মনগর বাজারে বাসনপট্টির রাস্তা জবরদখলে সমস্যায় ক্রেতা সাধারণ - Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা
০৭ আগস্ট ২০২০
শুক্রবার 

ধর্মনগর প্রতিনিধিঃ বর্তমানে রাজ্যে আনলক ওয়ান চলছে। এই আনলক ওয়ানে অত্যাবশ্যকীয় দ্রব্যাদির দোকান ছাড়া অনান্য সামগ্রীর দোকান বন্ধ থাকার কথা। কিন্তু ধর্মনগর বাজারের বাসনপট্টি এলাকায় প্লাস্টিক সামগ্রী ও বাসনের দোকানদার দের রাস্তা জবর দখলে নাজেহাল বাজারের ক্রেতা সাধারণ। তাদের এই সমস্যা বহুকাল পুরনো। প্রতি সময় ধর্মনগর বাজারের বাসনপট্টি এলাকার দোকানিরা তাদের বিক্রয়জাত প্লাস্টিকের আসবাব সহ থালাবাসন সামগ্রী দিয়ে দোকানের সামনের রাস্তার প্রায় অর্ধেক জায়গা দখল করে সামগ্রী গুলো সাজিয়ে রাখে একে তো ধর্মনগর বাজারের রাস্তা গুলো খুবই ছোট। 


তার মধ্যে আবার বাসন পট্টির রাস্তার দু-ধারের সারিবদ্ধ বাসনের স্তূপে রাস্তা আরো ছোট হয়ে পড়ছে। ফলে বাজারে আসা ক্রেতা সাধারণদের প্রতিনিয়ত সমস্যায় পরতে হচ্ছে।সকালে দোকান খোলে জিনিস সাজানোর পরে এই রাস্তার আয়তন এতটাই ছোট হয়ে পরে যে দুটো বাইক এই রাস্তা দিয়ে পাশ কেটে যাওয়া ও দুর্বিষহ। ফলে এই রাস্তায় কোন ঠেলা কিংবা ই-রিক্সা ঢুকলেই রাস্তা জ্যাম হয়ে পরে।  জ্যামের জন্য এই গোটা রাস্তার অনান্য যানচালক থেকে শুরু করে ক্রেতা সাধারণ ও পথচারীদের বহু সময় অপেক্ষা করতে হয়।


শুধু তাই নয় দোকানের বাইরে রাস্তার উপর সাজানো দ্রব্যাদি রোদ বৃষ্টিথেকে বাঁচতে প্রতিটি দোকানে সামনে যে ভাবে অস্থায়ী পলিথিন দিয়ে ছাউনি দেওয়া হয়েছে। তাতে বৃষ্টি দিলেই বৃষ্টির জল এসে সরাসরি মাঝরাস্তায় পড়ে। এতে এই রাস্তা দিয়ে চলাচলে ছাউনির বৃষ্টির জলে ভিজতে হয় পথচারীদের। এভাবেই এই বাসন পট্টির দোকানদাররা নিজেদের সুবিধার্থে অন্যদের সমস্যায় ফেলছেন। এই সমস্যা দীর্ঘ দিন থেকে এভাবেই চলে আসছে র্ধর্মনগরের বাজারের এই গলিপথটিতে। অথচ সমস্যা সমাধানে ধর্মনগর পুর পরিষদের নেই উদ্যোগ। এমনকি ট্রাফিক দপ্তরেরও কোন হেলদোল নেই। সরকার পরিবর্তনের পরপর ধর্মনগর পুরপরিষদ এই সমস্যা সমাধানে কিছুটা উদ্যোগ হলেও এই রাস্তার দোকানিরা পুরপরিষদের আদেশ মানতে নারাজ। 


কিন্তু প্রশ্ন  হলো সরকারি আদেশকে অমান্য করে এই দোকানদাররা সরকারি রাস্তা জবরদখল করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে তাতে ধর্মনগরের ট্রাফিক দপ্তর নিরব কেন? তবে কি ট্রাফিক দপ্তরের সাথে বাসন পট্টির ব্যবসায়ীদের কোন গোপন সমঝোতা রয়েছে? এও জানা গেছে বহু সামাজিক ও রাজনৈতিক সংস্থা বিভিন্ন জায়গায় এই সমস্যা সমাধানে ডেপুটেশন দিয়েছে। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না।

 

কোন মন্তব্য নেই