HeadLogo

কদমতলার ওসি-র কর্মকাণ্ডে বিক্ষুব্ধ জনতা সাক্ষাৎ করলো পুলিশ সুপারের সাথে - Sabuj Tripura News


সবুজ ত্রিপুরা
৯জুন, ২০২০
                  
মঙ্গলবার

ধর্মনগর প্রতিনিধি: রাজ্যের লকডাউন চলাকালীন সময়ে সিল করা হয়েছিল রাজ্যের চারিদিকের অর্থাৎ বহি রাজ্যের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থার। কিন্তু তার পরেও কদমতলা মহাদেব বাড়ি এলাকার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে মানুষ অবৈধ পথে আসামে অনবরত যাতায়াত করছিলেন। করোনা আতঙ্কে এলাকাবাসীর অভিযোগ মূলে কদমতলা থানার ওসি কৃষ্ণধন সরকারের উপস্থিতিতে কদমতলা মহাদেব বাড়িতে একটি আলোচনার সাপেক্ষে অবৈধভাবে আসাম-ত্রিপুরার যাতায়াত ব্যবস্থা বন্ধ করতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় স্থানীয় জনগণ ও পুলিশ যৌথভাবে টহলদারি শুরু করেন। তারই মধ্যে এক রাতে অবৈধভাবে আসাম থেকে রাজ্যে প্রবেশ করতে গিয়ে টহলদারির দায়িত্বে থাকা জনতার হাতে ধরা পড়ে কদমতলার পিয়ারাছড়া এলাকার বাসিন্দা বৃন্দাবতি গোয়ালার ছেলে ও বানিয়া নম নামে দুই ব্যক্তি। 

কিন্তু পরবর্তী সময় লক্ষ করা যায় অবৈধ ভাবে রাজ্যে প্রবেশকারিদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নানিয়ে বৃন্দাবতী গোয়ালার পাল্টা অভিযোগ মূলে কদমতলা থানার ওসি কৃষ্ণধন সরকার প্রশাসনের সাহায্যকারী টহলদারি জনগণদের থানায় ধরে আনে। এতে কদমতলার গোটা  মহাদেব বাড়ি এলাকা জুড়ে পুলিশের ভূমিকায় ক্ষোভ দেখা দেয়। ফলে  বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী গত ১৭ এপ্রিল এই বিষয়টির সুষ্ঠু মীমাংসা চেয়ে উত্তরের পুলিশ সুপারের নিকট আবেদন করেন। কিন্তু দীর্ঘ প্রায় দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও পুলিশ সুপারের উদ্যোগে কোন মীমাংসা হয়নি, বরং মহাদেব বাড়ি এলাকার জনগণ পিয়ারী ছড়া এলাকায় গেলে বৃন্দাবতী গোয়ালা সহ পিয়ারী ছড়ার জনগণের দ্বারা আক্রমণের শিকার হতে হচ্ছে। ফলে এই ঘটনার স্থায়ী সমাধান চেয়ে এবং অপরাধীদের শাস্তি চেয়ে মঙ্গলবার মহাদেব বাড়ি এলাকার জনৈক কিছু ব্যক্তি প্রতিনিধিমূলক ভাবে উত্তর জেলার পুলিশ সুপারের সাথে দেখা করলেন। পুলিশ সুপার অতি দ্রুত বিষয়টি মীমাংসা করার আশ্বাস দিয়েছেন। 



ছবিঃ স্বরূপ ঘোষ

কোন মন্তব্য নেই