HeadLogo

চুড়াইবাড়িতে ডেমো ট্রেন চালু হলে উপকৃত হবে এলাকাবাসী: টিংকু রায়



সবুজ ত্রিপুরা, চুড়াইবাড়ি প্রতিনিধি, ০২ নভেম্বর : রাজ্যের সীমান্ত এলাকা চুরাইবাড়িতে গতকাল স্থানীয় ফ্রেন্ডস্‌ ক্লাবের উদ্যোগে এক বস্ত্রদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা শিল্পোন্নয়ন নিগমের মাননীয় সভাপতি তথা যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি শ্রী টিংকু রায় মহাশয়। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে শ্রী রায় বলেন, ত্রিপুরার প্রবেশদ্বার চুড়াইবাড়ি স্টেশন থেকে একটি ডেমো ট্রেন চালু করলে সীমান্তবর্তী একটি বিস্তীর্ণ এলাকা প্রায় দু'লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন। বিষয়টি যাতে রাজ্য সরকারের দৃষ্টিগোচর করা যায়, এই লক্ষ্যে তিনি প্রয়াস করবেন।
        কদমতলা ব্লক এলাকা সহ বাগবাসা বিধানসভা কেন্দ্র ও পার্শ্ববর্তী রাজ্য আসামের কাঠালতলী, বাঘন, কলয়াঘাট, বালিরবন্ধ সহ এই কারণ, এখন আগরতলা যেতে হলে মানুষকে ধর্মনগর রেল স্টেশন থেকে ট্রেন ধরতে হচ্ছে, নয়তো বা শিলচর-আগরতলা প্যাসেঞ্জার ট্রেনের অপেক্ষা করতে হয়। তাতেও যাত্রী থাকে ভিড়ে ঠাসা। রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী শ্রী বিপ্লব কুমার দেবের প্রচেষ্টায় রাজ্যে ডেমো ট্রেন চালু হলেও সেটি চুড়াইবাড়ি থেকে আগরতলা যাতে করা হয়।
বর্তমানে ধর্মনগর থেকে প্রতিদিন আগরতলা যাচ্ছে ডেমো ট্রেন। তাছাড়া সকাল-বিকাল দুটো প্যাসেঞ্জার ট্রেন চলছে ধর্মনগর থেকে। ধর্মনগর রেল স্টেশনে গিয়ে ট্রেন ধরতে গাঁটের পয়সা খরচ করতে হচ্ছে। অনেকের গাড়ি রিজার্ভ করতে হয় তাতে ৩০০-৫০০ টাকা লেগে যায়। তাই বিশেষ করে ডেমো ট্রেন চুরাইবাড়ি থেকে চালু হলে উপকৃত হবে এলাকার মানুষ। শ্রী রায় বলেন, এটা রেল মন্ত্রকের ব্যাপার। তবে তিনি বিষয়টি রাজ্য সরকারের নজরে আনবেন, যাতে করে একটি ট্রেন হয়তো চুড়াইবাড়ি থেকে চালু করা যায়।
আজকের এই বস্ত্র দান শিবিরে শ্রী টিংকু রায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলার মাননীয় জেলাধিপতি শ্রী ভবতোষ দাস। গরীব অসহায় দুঃস্থ মানুষদের মধ্যে এদিন বস্ত্র বিতরণ করা হয়। কালীপূজোর পাশাপাশি প্রতিবছরই নানারকম সামাজিক কাজকর্ম করে থাকে ফ্রেন্ডস্‌ ক্লাব। আজকের এই বস্ত্রদান শিবিরের প্রায় দেড় শতাধিক দরিদ্র মানুষের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেয় সামাজিক এই সংস্থাটি।




কোন মন্তব্য নেই