Ad Code

Responsive Advertisement

স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়িতে জানালে বাবার বাড়ির লোকজন এসে রক্তাক্ত করল স্বামীসহ ৫ জনকে - Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা 
১৮ ডিসেম্বর ২০২০  
শুক্রবার

বক্সনগর প্রতিনিধিঃ স্বামী-স্ত্রীর পারিবারিক ঝগড়ায় স্ত্রী বাবার বাড়িতে বিষয় জানালে প্রচুর লোকজন এসে রক্তাক্ত করলো স্বামীর বাড়ির মানুষকে আহত ৬। পারিবারিক ঝগড়া চলছিল বহুদিন ধরে, স্ত্রীর উপর অত্যাচার দীর্ঘদিন ধরে করছিল তার স্বামী বলে অভিযোগ । তাই স্ত্রী স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়িতে জানালে প্রচুর লোকজন এসে দা, লাঠি দিয়ে রক্তাক্ত করল স্বামীর বাড়ির স্বামীসহ ৫ জনকে, দুপক্ষের মোট ৬ জন আহত হয়। এ ঘটনায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার বিবরণে জানা যায় মানিক্যনগর।

১ নং ওয়ার্ডের আব্দুল খালেক এর পুত্র আতিকুল ইসলামের সঙ্গে কমলনগর অগিরাটিলা এলাকার  আব্দুল হাসিম মিয়ার কন্যা আমেনা বেগমকে সামাজিক রীতিনীতি মেনে ৫বছর আগে বিবাহ  হয়। মোটামুটি ভালই ছিল আতিকুলের পরিবার কিন্তু হঠাৎ স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পরিবারের বিভিন্ন কিছু নিয়ে ঝগড়া হত। এই ঝগড়া এক সময় দিন দিন বাড়তে থাকায় তুমুল আকার ধারণ করে। তখন স্ত্রী আমেনা সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়িতে ভাইদের কাছে স্বামীর বিরুদ্ধে বললে কমলনগর থেকে ছুটি আসেন চারটি গাড়ি দিয়ে প্রায় ১০ থেকে১৫ জন মানুষ। 


জানা যায় সাথে দা লাঠিসহ অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আসেন এই ১৫ জন লোক। আতিকুলের বাড়িতে ঢুকে তারা এলো পাথারী  দা,লাঠি দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন প্রায় রক্তাক্ত হয় স্বামীর বাড়ির পাঁচজন এবং স্ত্রী বাড়ির একজন লোক। স্বামী আতিকুল ইসলামের বাড়ির আহত ৫ জনের মধ্যে তাজুল ইসলাম, খাতুন অজুফা খাতুন(৫০) পরিজা খাতুন(২১) এবং স্বামী আতিকুলকে গুরুতর অবস্থায় দেখে এই  চারজন কে হাপানিয়া হাসপাতালে রেফার করা হয়। 



অপরপক্ষে শামসু মিয়া গুরুতরভাবে আহত হন। এদিকে এই ঘটনার স্ত্রী আমেনা বেগমের দুই ভাই মোবারক হোসেন ও ফারুক ইসলামকে কলমচৌড়া থানায় আটক করে রাখেন। থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক রথিন্দ্র দেববর্মা ঘটনার একটি মামলা নিয়ে তদন্ত শুরু করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu