HeadLogo

উত্তর জেলার পুলিশ সুপার নেশা বিরোধী অভিযান চালিয়ে হেরোইন সহ এক যুবককে আটক করতে সক্ষম - Sabuj Tripura News


 
সবুজ ত্রিপুরা
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
শুক্রবার   

চুরাইবাড়ি প্রতিনিধিঃ উত্তর জেলার পুলিশ সুপার ভানুপদ চক্রবর্তী যেদিন থেকে উত্তর ত্রিপুরার পুলিশ সুপারের দায়িত্ব হাতে নিয়েছেন। সেই দিন থেকেই দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়ার  প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন।তেমনি আজ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উত্তর জেলার পুলিশ সুপার চুরাইবাড়ি থানার ওসি জয়ন্ত দাস সহ বিশাল পুলিশবাহিনী নিয়ে চুরাইবাড়ি থানাধীন এস টি পাড়া এলাকায় নেশা বিরোধী অভিযান চালান।

অভিযান চালিয়ে এক যুবকের কাছ থেকে দুই প্যাকেটে ২৫ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করতে সক্ষম হন। সাথে আটক করা হয় বজরুল হক (৪০) পিতা আব্দুল মজিদ নামের এক যুবককে। তার বাড়ি পার্শ্ববর্তী রাজ্য অসমের করিমগঞ্জ জেলার বারইগ্রামে। 


উদ্ধারকৃত হেরোইনের বাজার মূল্য আড়াই লক্ষাধিক টাকা। বর্তমানে হেরোইন সহ ধৃত নেশা কারবারি চুরাইবাড়ি থানার হেফাজতে রয়েছে।পাশাপাশি চুড়াইবাড়ি থানার পুলিশ একটি এনডিপিএস মামলা হাতে নিয়ে তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। এদিকে উত্তর জেলার পুলিশ 

সুপার ভানুপদ চক্রবর্তী জানান, রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী নেশা মুক্ত ত্রিপুরা গড়ার যে ডাক দিয়েছিলেন তা বাস্তবায়ন করতে পুলিশ প্রশাসনকে সাধারন জনগন যথেষ্ট সাহায্য করে যাচ্ছেন। আজও উনার কাছে খবর ছিল আসাম থেকে একটি যুবক পায়ে হেঁটে ত্রিপুরা আসাম সীমান্তের গভীর জঙ্গল দিয়ে রাজ্যে প্রবেশ করবে।  


সে খবরে উপর ভিত্তি করে চুরাইবারি থানাধীন এস টি পাড়া সংলগ্ন এলাকায় উৎপেতে বসে থাকেন। যখন ঐ যুবক গভীর জঙ্গল থেকে পায়ে হেঁটে ৮ নং আসাম আগরতলা জাতীয় সড়কে প্রবেশ করে, তখন পুলিশ ও টিএসআর জওয়ানরা ঐ যুবককে ধরতে গেলে সে পালাতে চেষ্টা চালায়।

যদিও পুলিশ ও টিএসআর জওয়ানরা সেই যুবককে আটক করতে সক্ষম হয়। এমনকি স্থানীয় জনগণও পুলিশ প্রশাসনকে যথেষ্ট সাহায্য করেন বলেও পুলিশ সুপার জানান। ধৃত যুবককে তল্লাশি চালিয়ে একটি ব্যাগের ভেতর থেকে দুই প্যাকেট হেরোইন উদ্ধার করা হয়। দুই প্যাকেটে ২৫ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে পুলিশ।যার বাজারমূল্য আড়াই লক্ষাধিক টাকা বলেও জানান পুলিশ সুপার ভানুপদ চক্রবর্তী। 


সাথে আটক করা হয় নেশা কারবারি অসম করিমগঞ্জ জেলার বারইগ্রামের বাসিন্দা বজরুলকে। পুলিশ সুপার জানান, বর্তমানে নেশা কারবারিরা অসম থেকে রাজ্যে গভীর জঙ্গল দিয়ে পায়ে হেঁটে নেশা সামগ্রী পাচারের পন্থা অবলম্বন করছে। তবে আগামী দিনেও নেশা বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান পুলিশ সুপার। অপরদিকে নেশা কারবারি বজরুল হককে আগামীকাল ধর্মনগর জেলা আদালতে প্রেরণ করবে চুরাইবাড়ি থানার পুলিশ।



কোন মন্তব্য নেই