HeadLogo

দ্রুতগতিতে বাইক চালানোর ফলে দুর্ঘটনার শিকার বিকলাঙ্গ যুবক - Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা
২৪ জুলাই ২০২০
শুক্রবার   

চুরাইবাড়ি প্রতিনিধিঃ দুর্ঘটনাটি সংঘটিত হয়েছে কদমতলা ধর্মনগর প্রধান সড়কের লালছড়া বাজার সংলগ্ন এলাকায়। ঘটনার বিবরণে প্রকাশ প্রতিদিনের ন্যায় আজও সাজ সকালে উত্তর জেলার কদমতলী থানাধীন পূর্ব ইচাইলালছড়া গ্রামের বাসিন্দা শারীরিকভাবে বিকলাঙ্গ সুমন নাথ পিতা সুনীল চন্দ্র নাথ পূজার ফুল তুলতে নিজ বাড়ি থেকে কদমতলা ধর্মনগর প্রধান সড়কটি পেরিয়ে পাশের বাড়িতে যাচ্ছিল।  
 
ঠিক তখনই একই গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল রহিম (২৮) পিতা মৃত অমর আলী নিজের TR05/5818 নম্বরের বাইক নিয়ে দ্রুতগতিতে লালছড়া থেকে কদমতলা দিকে আসছিল। আর বাইকের প্রবল গতির কারণে বেপরোয়াভাবে এসে সুমন নাথকে সজোরে ধাক্কা মারে চালক। ফলে বাইকের ধাক্কায় বিকলাঙ্গ যুবক সুমন নাথ রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে এবং সাথে বাইক নিয়ে রাস্তায় ছিটকে পড়ে বাইক চালক আব্দুল রহিম। 

দুজনকে গুরুতরভাবে আহত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে প্রেমতলা দমকল কর্মীরা কদমতলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে আসে এবং তাদের অবস্থা গুরুতর দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক ধর্মনগর জেলা হাসপাতালে রেফার করে। কিন্তু এর মধ্যে আব্দুর রহিমের ভাই কলিম উদ্দিন কদমতলা গ্রামীণ হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকের সাথে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে বলে অভিযোগ। আর সেই অভিযোগের ভিত্তিতে কলিম উদ্দিনকে কদমতলা থানার পুলিশ আটক করেছে। বর্তমানে কদমতলা থানার পুলিশি হেফাজতে রয়েছে কলিম উদ্দিন। 

পাশাপাশি কদমতলা থানার পুলিশ একটি মামলা হাতে নিয়ে তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। সাথে পুলিশ দুর্ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাইকটি উদ্ধার করে কদমতলা থানায় নিয়ে এসেছে। এদিকে বাইক চালক আব্দুর রহিমের পরিবার পরিজনরা কর্তবরত চিকিৎসকের সাথে কলিম উদ্দিনের অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করায় চিকিৎসকের কাছে ভুল স্বীকার করেন এবং দায়ের হওয়া মামলায় প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। তবে বর্তমানে পুলিশ তদন্ত করছে এবং যদি তাদের মধ্যে আপোষ মীমাংসা হয় তাহলে মামলা প্রত্যাহার হতে পারে বলে জানিয়েছেন কদমতলা থানার ওসি কৃষ্ণধন সরকার।


কোন মন্তব্য নেই