Ad Code

Responsive Advertisement

উত্তর জেলা পরিদর্শনে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব - Sabuj Tripura News


সবুজ ত্রিপুরা, 
৩ জুন, ২০২০
বুধবার

ধর্মনগর প্রতিনিধি:  ইতিমধ্যে রাজ্যে প্রতিদিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বুধবার বিকেল পর্যন্ত রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫২০জন। মূলত বহি রাজ্য থেকে প্রতিদিন এ রাজ্যের নাগরিকরা বাড়িতে ফিরছেন  আর তাদের করোনার নমুনা পরীক্ষার পরেই ব্যাপক হারে মিলছে করোনা আক্রান্তের সন্ধান। রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলায় রাজ্য সরকার করোনা মোকাবিলায় সচেষ্ট হয়ে উঠেছে।  ফলে বহিরাজ্য থেকে রাজ্যে ফেরা নাগরিকদের জন্য রাজ্যের প্রতিটি প্রান্তেই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের ব্যাবস্থা করা হয়েছে। বুধবার উত্তর জেলার প্রতিটি ব্লকের এই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন গুলোর হাল হকিকত খতিয়ে দেখতে ধর্মনগর এলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। বুধবার তিনি ধর্মনগরে এসেই প্রথমে চলে যান গঙ্গানগর স্কুলের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। সেখান থেকে গঙ্গানগর পঞ্চায়েত অফিসে গিয়ে পঞ্চায়েতের কাজকর্ম নিয়ে পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথাবার্তা বলে চলে যান কালাছড়া ব্লকের অন্তর্গত বালুছরার প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। সেখানের জনগনদের সাথে কথা বলে চুড়াই বাড়ির জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে চলে যান। এভাবেই বুধবার ধর্মনগর মহকুমার বিভিন্ন ব্লকে গুরুত্বপূর্ণ সফর সেরে দুপুর ২ টা নাগাদ পানিসাগরের উদ্দেশে বেড়িয়ে পরেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।

চুরাইবাড়ি প্রতিনিধি সংযোজনমুখ্যমন্ত্রী বালিছড়া স্কুলে কোয়ারান্টিনে থাকা ৮ জনের হাল-হকিকত ও কোন সমস্যা আছে কিনা তা খোঁজ খবর নেন। তাদের সাথে বার্তালাপের পর একটি হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাড়িতে গিয়ে ঐ পরিবারের সাথে বার্তালাপ করেন ও তাদের কোন সমস্যা আছে কিনা তা খোঁজ খবর নেন। এরপর বালিছড়া এডিসি
ভিলেজের চেয়ারম্যান পঞ্চায়েত অন্যান্যদের সাথে নিয়ে ঐ এলাকার কোন ধরনের সমস্যা আছে কিনা তা সরজমিন শুনেন।

                                
 
এরপর কদমতলা থানাধীন বরগোল গ্রাম পঞ্চায়েতে করোনা মনিটরিং কমিটি ও অ্যাওয়ারনেস কমিটির সাথে আলোচনা রাখেন এবং অত্র এলাকায় এই মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সাধারণ জনগণের কোন ধরনের সুবিধা অসুবিধা আছে কিনা তা সরজমিন ভিডিওসহ পঞ্চায়েত স্তরে প্রার্থীদের কাছ থেকে খোঁজ খবর নেন। খোঁজখবর নেন কৃষাণ নিধি যোজনা, উজ্জ্বলা যোজনা ইত্যাদি সাধারণ জনগণ পেয়েছেন কি না। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বরগোল গ্রাম পঞ্চায়েতে আসাতে ৫৫ নং বাগবাসা বিধানসভা কেন্দ্রের সিপিআইএম দলের বিধায়িকা  বিজিতা নাথও উনার বাগবাসা বিধানসভা কেন্দ্রের সুবিধা অসুবিধা সকল চিত্র মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। 
পরিশেষে উত্তর জেলার কদমতলা, কালাছড়া ও যুবরাজনগর ব্লক পরিদর্শন শেষে মুখ্যমন্ত্রী পানিসাগরের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেন

পানিসাগর প্রতিনিধি সংযোজন:  প্রাকৃতিক দূর্যোগকে মধ্যে আজ দুপুর দুই ঘটিকায় পানিসাগরের কয়েকটি স্থান পরিদর্শন করেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। উনার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপাধক্ষ্য বিশ্ববন্ধু সেন, পানিসাগর বিধানসভার মাননীয় বিধায়ক বিনয় ভূষন দাস, জেলা সমাহর্তা রাভেল হেমেন্দ্র কুমার, বি,ডি,ও,পানিসাগর হোমাগ্নি ভট্টাচার্য সহ অন্যান্য আধিকারিক বৃন্ধ। আজ সকাল থেকেই ধর্মনগর,যুবরাজ নগরের কয়েকটি স্থান পরিদর্শন করে পরবর্তীতে এসে পৌছায় পানিসাগরে। প্রথমেই পানিসাগর কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র পরিদর্শনের মধ্যদিয়ে শুরুকরেন। এরপর চলে যান শারীর শিক্ষন মহাবিদ্যালয়ের অস্থায়ি কোয়ারান্টিনইন সেন্টারে।সেখানে মুখ্যমন্ত্রীকে স্বাগত জানান পানিসাগরের মহকুমা শাসক লাল নুন নেইমি ডার্লং। তিনি কথা বলেন বহিরাজ্য থেকে ফিরে আসা প্রায় কুড়ি জন শ্রমিকের সাথে। এদেরকে মানুষিক দিক থেকে মনোবল না হারনোর অনুরোধ করেন। পরবর্তীতে চলে যান অগ্নিপাশা গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ে। খোঁজ খবর নেন এলাকার জনগনের। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে বিদ্যুৎ, পানীয় জলের কোন সমস্যা রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখেন। সেখান থেকে বেরিয়ে চেন্নাই থেকে আসা একজন হোম কোরেন্টাইনে থাকা ছাএের সাথে কথা বলেন। পরিশেষে ঐ এলাকায় অবস্থিত বালকমনি স্কুলে নুতন করে অস্থায়ি কোরেন্টিন সেন্টারটি আবহাওয়া জনিত সমস্যার কারনে সফর না করেই পানিসাগর ছাড়তে বাধ্য হয়। বর্তমান পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীর যটিকা সফরে কিছুটা হলেও স্বস্তির পরিবেশ পরিলক্ষিত হয়।

                                                                        

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu