HeadLogo

কাঞ্চনপুরে লক ডাউনেও বেপরোয়াভাবে বিলাতি মদ বিক্রি, গ্রেপ্তার মদ ব্যবসায়ী



সবুজ ত্রিপুরা, নিজস্ব প্রতিনিধি, ১৪ এপ্রিল : মারণ ব্যাধি করোনার ফলে সারা বিশ্বের সাথে আমাদের দেশেও প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এর থেকে বাঁচতে গোটা দেশেই চলছে লকডাউন।


                 কিন্তু এই লকডাউনের সরকারি নির্দেশকে অমান্য করে উত্তর জেলার কাঞ্চনপুরে সরকারি বরাদপ্রাপ্ত বিলাতি মদের দোকানে চলছে রমরমা মদের ব্যবসা।

মহকুমার শাসক ও পুলিশ আধিকারিকের অভিযান লকডাউন অমান্যকারী মদ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। ছবি : স্বরূপ ঘোষ।
              গত সোমবার দুপুরে এক গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে কাঞ্চনপুরের মহকুমাশাসক শ্রীমতী চাঁদনি চন্দ্রণ ও মহকুমা পুলিশ আধিকারিক শ্রী বিক্রমজিৎ শুক্ল দাসের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী কাঞ্চনপুরের সরকারি বরাদপ্রাপ্ত বিলাতি মদের দোকান চত্বরে অভিযান চালান। সেখানে হাতে নাতে ধরে ফেলেন মদ বিক্রি করতে বসা  সেই দোকানের মালিক হিমাদ্রি পাল ওরফে রুপম পালকে।


             সাথে সাথে তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সূত্রের খবর, এই কঠিন পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশ লঙ্ঘন করে যে রুপম পাল এভাবে দিনের পর দিন বেআইনি ভাবে মদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে, তাকে জামিনে ছাড়াতে স্থানীয় কিছু শাসকদলের নেতারা উঠে পরে লেগেছে।


লকডাউনেও মদ বিক্রি করতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ল ব্যবসায়ী। ছবি : স্বরূপ ঘোষ।

আরও পড়ুন : রাজ্যের প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হলেন, দ্বিতীয় রিপোর্টের ফল নেগেটিভ
         
প্রথম অবস্থায় পুলিশ জামিন না দিলেও পরবর্তীতে কাঞ্চনপুর থানা রুপম পালকে সোমবার রাতেই জামিনে ছেড়ে দেন। তবে যেখানে প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ প্রশাসনিক কর্তারা বার বার লক ডাউনকে সঠিক ভাবে পালন করতে অনুরোধ করছেন, সেখানে সরকারি নির্দেশ অমান্য করা এক গুরুতর অপরাধীকে এত সহজে কিভাবে জামিনে ছেড়ে দেওয়া হল? এই ঘটনার পর কাঞ্চনপুর থানার ভূমিকা নিয়ে গোটা জেলায় ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। 


কোন মন্তব্য নেই