Ad Code

Responsive Advertisement

কুখ্যাত তীরের এজেন্ট সহ তীর খেলায় যুক্ত এক যুবক আটক


সবুজ ত্রিপুরা, চুড়াইবাড়ি প্রতিনিধি, ০৮ আগস্ট :  পুলিশের জালে আটক কুখ্যাত এক তীরের এজেন্ট সহ তীর খেলায় যুক্ত এক যুবক। তাদের কাছ থেকে ৭০০ টাকা, একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সহ‌ বেশকিছু তীর খেলার কাগজপত্র উদ্ধার করেছে কদমতলা থানার পুলিশ। ধৃতদের নাম অভিজিৎ কর্মকার ও পিকি নাথ চৌধুরী। তবে বর্তমান যুগে আধুনিকতার ফলে তীর খেলার এজেন্ট সহ তীর খেলায় যুক্ত যুবকদের পাকড়াও করাটা পুলিশের কাছে কিছুটা দুষ্কার্য হয়ে পড়েছে। কেননা সব কিছু হয়ে যায় অনলাইন মোবাইলের মাধ্যমে। ধরাছোঁয়ার বাইরে তীরের এজেন্ট ও খেলায় নিযুক্ত মানুষরা। তবুও অবশেষে কদমতলা থানার পুলিশের হাতে তীরের এজেন্টসহ তীর খেলায় নিযুক্ত এক যুবক আটক হওয়াতে জনমনে কিছুটা স্বস্তির নিঃশ্বাস এসেছে।
দীর্ঘদিন থেকে উত্তর জেলার কদমতলা থানা এলাকায় তীর জুয়ার রমরমা চলে আসছে।তীর জুয়ার ফলে নব প্রজন্ম থেকে শুরু করে সকল স্তরের মানুষ ধ্বংসের মুখে চলে যাচ্ছে। রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার স্বপ্নের মিথ্যে আশায় তীর খেলাতে যুক্ত হয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছে অনেক মানুষ। মুষ্টিমেয় কিছু অসাধু তীরের এজেন্টরা আধুনিক যুগে মোবাইলের মাধ্যমে শিলংয়ে তীর খেলার রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে গোটা কদমতলা থানা এলাকায় তীর খেলা জাঁকিয়ে বসেছে। স্থানীয় মানুষ প্রতিদিন বেলা বাড়ার সাথে সাথে নিজের মর্জি মাফিক ১ থেকে ৯৯ পর্যন্ত নম্বর এর উপর টাকা লাগান। বিকেলবেলা শিলংয়ে এই তীর খেলার যে রেজাল্ট আসবে অর্থাৎ যে নাম্বারটি উঠবে সেই জয়ী হবে আর শর্তসাপেক্ষে মুনাফাটা ওই ব্যক্তি পাবে। কিন্তু সেই নেশার লোভে কদমতলা থানা এলাকার সাধারণ মানুষ আজ সর্বস্বান্ত।অবশেষে আজ কদমতলা থানার এস আই প্রাজিত মালাকার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে লালছড়া বাজার থেকে তীরের নাম্বার কাটাখালিন অবস্থায় তীরের এজেন্ট অভিজিৎ কর্মকার (৩৮) ও  তীর খেলায় যুক্ত পিকি নাথ চৌধুরি(৩২) নামে এক যুবককে আটক করেন। জানা গেছে, অভিজিৎ কর্মকার পিতা অজিত কর্মকার ধর্মনগর থানাধীন দক্ষিণ নয়াপাড়ার বাসিন্দা। সে দীর্ঘদিন যাবৎ লালছড়া বাজারে তীরের অবৈধ ব্যবসা চালাতো।

অপরদিকে পিকি নাথ চৌধুরী পিতা প্রাণেশ নাথ চৌধুরী স্থানীয় ইচাইলালছাড়ার বাসিন্দা।
কদমতলা থানার এস আই প্রাজিত মালাকারের এই তীর বিরোধী অভিযানে কদমতলা থানা এলাকায় সাধারণ জনগণের মধ্যে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরে এসেছে।
পাশাপাশি এসআই প্রাজিত মালাকার জানান, উনারা প্রতিনিয়ত তীর জুয়ার অবৈধ ব্যবসার বিরুদ্ধে লাগাতার অভিযান অব্যাহত রাখবেন পাশাপাশি এই চক্রের মূল পাণ্ডাদেরকেও পাকড়াও করার প্রয়াস জারি রাখবেন।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu