HeadLogo

উত্তর জেলা নেহেরু যুব কেন্দ্র সংস্থান-এর এক দিবসীয় ব্লকভিত্তিক সন্নিহিত যুব সংসদ


সবুজ ত্রিপুরা, বিশেষ প্রতিনিধি, ২০ জুন : গতকাল ১৯ জুন বুধবার উত্তর জেলার ধর্মনগর সরকারী মহাবিদ্যালয়ের কনফারেন্স হলে ভারত সরকারের যুব ও ক্রীড়া দপ্তরের অধীন নেহেরু যুব কেন্দ্র, উত্তর জেলার উদ্যোগে এবং কালাছড়া ব্লকের অন্তর্গত উদ্ভাবনী সামাজিক সংস্থার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হল এক দিবসীয় ব্লকভিত্তিক সন্নিহিত যুব সংসদ।
বেলা ১.০০ ঘটিকা নাগাদ প্রদীপ প্রজ্বলন করে এই অনুষ্ঠানটির শুভ উদবোধন করেন ধর্মনগর পুর পরিষদের মাননীয়া সদস্যা শ্রীমতী নবনীতা আচার্য্য মহোদয়া। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট সমাজসেবী অবিনাশ কৃষ্ণ দাস মহাশয়। এছাড়াও অন্যান্য উপস্থিত অতিথিদের ছিলেন উত্তর জেলা পুলিশ উপ-অধীক্ষক শ্রী ভি. ডার্লং, জাতীয় কর্মজীবন সেবার তরুণ পেশাদার শ্রী পি. শ্রীবাস্তব, ধর্মনগর সরকারী মহাবিদ্যালয়ের মাননীয় অধ্যক্ষ ডঃ দিলীপ সরকার, ধর্মনগর সরকারী মহাবিদ্যালয়ের জাতীয় সেবা প্রকল্পের কার্য্যক্রম কর্মকর্তা মাননীয় অধ্যাপক শ্রী চন্দনময় পাল, রাজ্য সরকারের সমবায় সমিতির কর্মকর্তা শ্রী আর. মজুমদার, নেহেরু যুব কেন্দ্র সংস্থান উত্তর জেলার যুব সংযোজিকা শ্রীমতি জবা চক্রবর্তী, যোগা প্রশিক্ষক শ্রী সুবেন্দু পুরকায়স্থ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নেহেরু যুব কেন্দ্র সংস্থান উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক শ্রী রণদ্বীপ রুদ্রপাল। উক্ত অনুষ্ঠানটির উদ্দেশ্য নিয়ে শ্রীমতি জবা চক্রবর্তী নিজের মূল্যবান বক্তব্য রাখেন।
পুর পরিষদের মাননীয়া সদস্যা শ্রীমতী নবনীতা আচার্য্য মহোদয়া তাঁর বক্তব্য রাখছেন (বাঁয়ে)। অনুষ্ঠানে কলাকুশলীদের ব্যায়াম প্রদর্শন(ডানে)। ছবি : নিজস্ব।

           আয়োজিত এই অনুষ্ঠানটির আলোচ্য বিষয় ছিল –
  ১.    নেশামুক্ত ভবিষ্যৎ গঠন ও উন্নয়নে যুবকেন্দ্রের ভূমিকা
  ২.    সমাজের বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা
  ৩.    কর্মজীবন সংক্রান্ত পরামর্শ ও জাতীয় কর্মজীবন সেবা সম্পর্কে সচেতনতা
  ৪.    যুবকেন্দ্রে নিবন্ধন প্রক্রিয়া
  ৫.    আমাদের জীবনে যোগ ও যোগাভ্যাসের গুরুত্ব ইত্যাদি।
          আগামী ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগ দিবসকে উপলক্ষ্য করে আয়োজিত এই যুব সংসদে কালাছড়া ব্লক এলাকার বিভিন্ন যুব সংঘ থেকে মোট ৮০ জন সদস্য-সদস্যা অংশগ্রহণ করেন। শ্রীমতী নবনীতা আর্চায্য মহোদয়া উনার বক্তব্যের মাধ্যমে যুব শক্তিকে সমাজ গঠনের জন্য দায়িত্বশীল হতে আহ্বান জানান। এছাড়াও যুব সংস্থাগুলোর নিবন্ধন সম্পর্কিত বিষয় নিয়েও আলোচনা করা হয় এবং রাজ্য সরকারের সমবায় সমিতির কর্মকর্তা শ্রী আর. মজুমদার এ বিষয়ে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন। সর্বশেষে সভাপতির বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।



কোন মন্তব্য নেই