HeadLogo

রাজ্যের রক্ত সংক্রান্ত সমস্যা কাটিয়ে উঠার জন্য বার্ষিক রক্তদান পঞ্জিকার চিন্তাধারা


সবুজ ত্রিপুরা, সংবাদমাধ্যম, ২২ জুন : ত্রিপুরা রাজ্যে রক্ত সংকট কাটিয়ে উঠার পাশাপাশি প্রধান দাতা সংস্থার মধ্যে অভিন্নতা বজায় রাখার জন্য একটি বার্ষিক রক্তদান পঞ্জিকা নিয়ে আসছে ত্রিপুরার সিভিল সার্ভিস অফিসারস্‌ অ্যাসোসিয়েশনের (টিসিএসওএ) বার্ষিক রক্তদান শিবিরে গতকাল ২৩ জুন রবিবার রাজধানীর ভগত সিং যুবা হোস্টেলে রক্তদান করার পর ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব একথা ঘোষণা করেছেন
টিসিএসওএ-এর বার্ষিক রক্তদান শিবিরে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব রক্তদান করছেন। ছবি : সংবাদমাধ্যম।
মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী, যিনি রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগেরও প্রমুখ, বলেন, "ত্রিপুরাতে বিভিন্ন ক্লাব, সামাজিক সংগঠন, রাজনৈতিক দল ইত্যাদি কর্তৃক দীর্ঘদিন ধরেই রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হচ্ছে তাই আমাদেরকে এটি সংগঠিত করতে হবে, কারণ যদি একসঙ্গে দান করা হয় তবে তিন মাস সময়ের মধ্যে রক্ত নষ্ট হয়ে যাবে তাই আমরা স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রধান সচিবকে এক সপ্তাহের মধ্যে একটি বার্ষিক পঞ্জিকা প্রস্তুত করতে বলেছি এটি প্রস্তুত করা হবে যাতে রাজ্যের পুলিশবাহিনী অর্থাৎ টিএসআরের মতো বড় দাতা, যাদের ১২ টি ব্যাটালিয়নের মধ্যে অন্ততঃ ১০,০০০ থেকে ১২,০০০ রক্তদাতা রয়েছে, তাদের প্রতিটি ব্যাটালিয়ন থেকে যদি প্রতি মাসে রক্তদান করে, তবে আমরা বছরে কমপক্ষে ১২,০০০ বোতল রক্ত পেতে পারব এছাড়াও পুলিশ, আধা সামরিক বাহিনী যথা সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনী বা বিএসএফ, আসাম রাইফেলস্‌, কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ বাহিনী বা সিআরপিএফ, যারা সাধারণতঃ রক্তদান করছেন,  কিন্তু আমাদের নিয়মানুসারে চলতে হবে এবং যা বর্তমানে ঘটছে না
তিনি আরো বলেন, "এই বিষয়গুলো আমাদের নজরে এসেছে এবং আমরা প্রধান সচিবকে একটি দিনপঞ্জী নিয়ে আসতে বলেছি। তাছাড়া অন্যান্য সমুদায় যথা – আধিকারিক সমিতি, বেসরকারি সংস্থান এবং অন্যান্য সমিতিও আমাদের পাশে রয়েছে সম্প্রতি, আমি রাজ্যে রক্ত সংকট লক্ষ্য করেছি; এটা হওয়া উচিত নয়। এখন সরকার এটি একটি নিয়মের অধীনে আনছে এবং আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এটি একটি চলমান প্রক্রিয়ার আওতায় চলে আসবে যাতে ত্রিপুরাতে রক্তের কোন সংকট আর দেখা না দেয়। "
টিসিএসও সংস্থাটির সভাপতি শ্রী দিলীপ কুমার চাকমা, যিনি নিজেও এই শিবিরে রক্তদান করেন, জানান যে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর সাথে টিসিএসও-এর ১৫০ সদস্যের শিবির ক্যাম্পে রক্ত দান করেছেন। তিনি আর বলেন যে, টিসিএসও-এর অন্য সদস্যরা নিখরচায় রাজ্যের বিকাশের জন্য নিরপেক্ষভাবে কাজ করে চলেছেন ও বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে সক্রিয়ভাবে তাঁরা অংশগ্রহণকারী এবং রক্তদান এই কর্মকান্ডেরই একটি অংশ।

কোন মন্তব্য নেই