তেলিয়ামুড়ায় জাতীয় প্রেস স্বাধীনতা দিবসের দিনে কংগ্রেস কর্মীদের হাতে আক্রান্ত এক সাংবাদিক- Sabuj Tripura News

সবুজ ত্রিপুরা
৪ মে
মঙ্গলবার

তেলিয়ামুড়া প্রতিনিধি:-  ঘটনা সোমবার সন্ধ্যাবেলা তেলিয়ামুড়া থানার এগিয়ে চলো ক্লাব সংলগ্ন জাতীয় সড়কে। এবারে কংগ্রেসের দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হতে হলেন ওয়েব মিডিয়া জনতার আওয়াজ এর সাংবাদিক রাহুল দাস। সোমবার পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি দলের হারের উৎসাহে তেলিয়ামুড়া জেলা যুব কংগ্রেস সভাপতির নেতৃত্বে বাজি পটকা পোড়ানো শুরু হয়, এক সময় তারা থানায় এসে একটি পুরোনো মামলার আসামিকে গ্রেফতারের দাবি করেন। 

এর কিছুক্ষণ পর বাজারে তেলিয়ামুড়া সিপিআইএম পার্টি অফিসের সামনে  কংগ্রেস কর্মীরা জমায়েত করেন। ওই সময় বিজেপি যুব মোর্চা কয়েকজন সিপিআইএম পার্টি অফিসের সামনের দিকে যাওয়ার সময় তাদের ওপর ঢিল ছোড়া হয় বলে অভিযোগ। পরবর্তীতে পুলিশ গিয়ে মৃদু লাঠিচার্জ করে তাদের সরিয়ে দেন। 

পুলিশের ধাওয়া খেয়ে কংগ্রেস কর্মীরা এগিয়ে চলো ক্লাবের সামনে জড়ো হন, ওই সময় সাংবাদিক রাহুল দাস তার পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে বাইক নিয়ে হাওয়াই বাড়ির উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় কংগ্রেস কর্মীরা রাহুলের বাইক আটক করে, রড এবং লাঠি দিয়ে তার মাথায় মারাত্মকভাবে আঘাত করে, এক সময় তাকে মাটিতে ফেলে ব্যাপকভাবে মারধোর করা হয়, শেষে রাহুল অনেক কষ্টে সেখান থেকে পালিয়ে যান। অভিযোগ ঘটনাস্থলে পুলিশ থাকলেও তারা রাহুল কে বাঁচাতে এগিয়ে আসেননি। 

ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তেলিয়ামুড়ার বিধায়িকা কল্যাণী রায় এর নেতৃত্বে থানার সামনে জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হয়, প্রায় দুই ঘন্টা পর জেলা পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এদিকে বিধায়িকা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ঘটনাটি জানান। মুখ্যমন্ত্রী এসপিকে ঘটনাস্থলে পাঠান। 

এর পরবর্তী সময়ে তেলিয়ামুড়া মহাকুমা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকরা আসামি গ্রেফতারের দাবিতে থানার মূল ফটক এর সামনে ধরনায় বসেন। থানার সামনে সাংবাদিকরা দীর্ঘক্ষণ বসে থাকলেও জেলা পুলিশ আধিকারিক তাদের সাথে কথা বলার প্রয়োজন বোধ করেননি।

আরো পাড়ুন:-সাত লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দিয়ে এম্বুলেন্স দান করলেন কমলাসাগর বিধানসভার বিধায়ক নারায়ণ চৌধুরী

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu