HeadLogo

অনলাইন জালিয়াতির মামলা বৃদ্ধি পাওয়ায়, কি ভাবে নিজেদের অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রখবেন পরামর্শ দিল গুগল


সবুজ ত্রিপুরা, বিশেষ প্রতিবেদন, ৮মে : করোনা ভাইরাস এর জন্য আজ সবাই গৃহবন্দি। এক তথ্য থেকে জানাযায় এই সময়ে ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে। ফেসবুক, হোয়াটস্যাপ, টিকটক এর ইউজারের সংখ্যা দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।মানুষ ঘরে বসে ইন্টারনেটে সময় অতিবাহিত করছেন। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু প্রতারক তাদের জালিয়াতিও বৃদ্ধি করে দিয়েছে। জিনিসপত্র এবং সার্ভিসেসের ভুয়ো অফার, ব্যাঙ্ক এর আধিকারিক সেজে জালিয়াতি, গুরুত্বপূর্ণ ডেটা লিক এই ধরনের বেশকিছু জালিয়াতির মামলা সামনে এসেছে। আর এই জালিয়াতিগুলির থেকে নিজেদেরকে সুরক্ষিত রাখার জন্য পৃথিবীর সবথেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন গুগল কিছু পরামর্শ দিয়েছে। তারা জানিয়েছে করোনা ভাইরাসকে কেন্দ্র করে পাঁচটি পদ্ধতি অবলম্বন করে অনলাইন জালিয়াতি করা হচ্ছে। গুগলের পক্ষ থেকে যে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে সে গুলি হল।

১.আপনার সফ্টওয়্যার আপডেট রাখুন।

আপনার ফোন, ল্যাপটপে থাকা সফ্টওয়্যার আপডেট করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। হ্যাকাররা যখন আপনার ডেটা চুরি করার নতুন উপায় আবিষ্কার করে, তখন সেই গ্যাজেট এবং সফ্টওয়্যার সংস্থাগুলি সেই দুর্বলতা সমাধান এর জন্য দ্রুত কাজ করে এবং তাদের গ্যাজেট এবং সফ্টওয়্যারের নূতন আপডেট নিয়ে আসে। 

২.ব্যক্তিগত অথবা আর্থিক তথ্য কখনও কার সাথে শেয়ার করবেনা।  

যদি আপনার ইমেইল অ্যাকাউন্টে এ কোন ভুয়ো মেইল আসে এবং আপনার কাছ থেকে কোন ব্যক্তিগত তথ্য অথবা আর্থিক তথ্য জানতে চাওয়া হয় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে এই মেইল অ্যাড্রেসটিকে ব্লক করে দিন এবং পরবর্তীকালে সেইরকম ইমেইল থেকে দূরে থাকুন।



৩। একাধিক সাইটের জন্য একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন না

আমরা আমাদের অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখার জন্য পাসওয়ার্ড ব্যাবহার করে থাকি। কিন্তু আমরা প্রায় একটি ভুল করি সকল অ্যাকাউন্ট এর জন্য একি পাসওয়ার্ড ব্যাবহার করি। যদি কখন  আমাদের পাসওয়ার্ড হ্যাক হয় তাহলে হ্যাকাররা এক সাথে আমাদের সব গুলি অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেনিতে পারে তাই আমাদের অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখার জন্য ভিন্ন ভিন্ন পাসওয়ার্ড ব্যাবহার করা উচিত।

৪।  কিছু জানতে হলে গুগলে সার্চ করে নিন

যদি আপনার কাছে কোন ভুয়া ম্যাসেজ আসে তাহলে আপইনি সঙ্গে সঙ্গে মেসেজটি গুগলে সার্চ করে দেখে নিন যে এই মেসেজটি আদৌ সত্য নাকি জালিয়াতি করার জন্য পাঠানো হয়েছে। কারন এটা অবশ্যই এই মেসেজটি আপনাকে ছাড়াও আরো বহু লোককে পাঠানো হয়েছে এবং গুগলে এই মেসেজটি সমন্ধে আপনি অনেক তথ্য পেয়ে যাবেন।

৫। অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখার জন্য টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করে রাখুন।

আপনি নিজের অ্যাকাউন্টে টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করে রাখুন। এই ভেরিফিকেশন চালু করে রাখলে যখনই অন্য কোন ডিভাইস থেকে আপনার অ্যাকাউন্ট চালু করা হবে তখন আপনার কাছে বার্তা পৌঁছে যাবে। এবং আপনি প্রয়োজনীয় সতর্কতা গ্রহণ করতে পারবেন।



কোন মন্তব্য নেই