HeadLogo

মালবাহী ট্রেনে চেপে আসা ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠাল স্বাস্থ্য দপ্তর, জিআরপুলিশের ভুমিকায় ক্ষোভ

 
সবুজ ত্রিপুরা, ধর্মনগর প্রতিনিধি, ১ মে : গতকাল রাতে পাশ্ববর্তী রাজ্য আসামের করিমগঞ্জে পাওয়া গেলো আরো একজন করোনা পজেটিভ। এই নিয়ে আসামে করোনা পজেটিভের মোট সংখ্যা হলো ৪৩।  আর এই পরিস্থিতির মধ্যেই গতকাল রাতে  আসামের করিমগঞ্জ জেলার বদরপুর থেকে এক ব্যাক্তি মালবাহী ট্রেনে চেপে ধর্মনগর আসেন। শুক্রবার সকাল হতেই ধর্মনগর রেলকলোনী এলাকার লোকজন ঐ ব্যাক্তিকে দেখতে পেয়ে স্বাস্থ্য দপ্তরকে জানান। কিছু সময়ের মধ্যেই জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর অর্থাৎ ডাক্তারসহ পুরো মেডিকেল টিম ধর্মনগর রেল স্টেশন চত্বরে পৌছে বদরপুর থেকে আসা ঐ  ব্যাক্তিকে ফেসিলেটি কোয়ারেন্টাইনের জন্য নিয়ে যান। 

উপস্থিত চিকিৎসক জানিয়েছেন উনাকে জিজ্ঞাসা বাদ করে জানা হবে উনি গতকাল ধর্মনগরে এসে কার কার সংস্পর্শে এসেছেন। আর উনি যাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদেরকেও কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হবে। জানাগেছে বদরপুর থেকে আসা ঐ ব্যাক্তির নাম অজয় দেব। বদরপুরের  জুমবস্থি এলাকায় উনার বাড়ি। উনি জানান উনি পেশায় একজন ঠিকেদার। রেলের কিছু দ্রব্যাদি নিয়েই গতকাল ধর্মনগরে আসেন। কিন্তু  প্রশ্ন হচ্ছে যেখানে প্রশাসনিক ভাবে বার বার করোনা মোকাবিলায় প্রত্যেকেই নিজ নিজ জায়গায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে, সেই যায়গায় কেন উনি সরকারি নির্দেশকে অমান্য করে বদরপুর থেকে ধর্মনগরে এলেন। পাশাপাশি গতকাল রাতে উনি ট্রেনে চড়েই ধর্মনগরে এলেন অথচ রেল প্লেটফর্মে কর্মরত জিআরপুলিশ কেনই বা বিষয়টি জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরকে জানালেন না! জিআরপুলিশের ভুমিকায় স্থানীয় মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। যদি এ ভাবেই চলতে থাকে তবে যে কোন সময়  অনায়াসেই করোনা চলে আসতে পারে এক রাজ্য থেকে আরেক রাজ্যে । 

তবে এই ঘটনায় এলাকাবাসীর উদ্যোগ প্রশংসনীয়। কেননা সচেতন এলাকাবাসীর তৎপরতায় বর্তমানে বদরপুর থেকে আগত ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টাইনে করোনার নমুনা পরীক্ষা চলছে। 

কোন মন্তব্য নেই