HeadLogo

আজ থেকে চুড়াইবাড়ীতে শুরু হল মুখের লালারস পরীক্ষা করা



সবুজ ত্রিপুরা, ধর্মনগর প্রতিনিধি, ৩০ এপ্রিল : ত্রিপুরার প্রবেশদ্বার চুড়াইবাড়ী চেকপোস্ট মানেই রাজ্যের প্রধান সুরক্ষা কবজ। এখান থেকেই কিন্তু সব কিছু নির্ভর করবে রাজ্যের করোনা মোকাবিলার ভবিষ্যৎ। বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় চুরাইবাড়ী গেট কমপ্লেক্সে দিন রাত ২৪ ঘন্টা আসা লোকদের পরীক্ষা  করছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। আর আজ থেকে শুরু হয়েছে মুখের লালারস পরীক্ষা। যদি কোন ব্যক্তির মধ্যে করোনার কোন প্রকার লক্ষণ দেখা যায় তাহলে জহর নবোদয় বিদ্যালয়ে হোম কোয়ারেইন্টান সেন্টারে রাখা হবে। প্রতিদিন শতশত লরি লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থাকছে। চালক ও সহ চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর ছাড়া হচ্ছে।
কিন্তু এখানে যে বিষয়টা উল্লেখ থাকা আবশ্যক কোন গাড়ী কিন্তু সেনিটাইজেশন করা হচ্ছে না। তা ত্রিপুরার জন্য ঝুঁকির বিষয় বলা যেতে পারে। এ বিষয়ে রাজ্য সরকারকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে। বহি রাজ্য থেকে যারা আসছেন তাদের নাম লিপিবদ্ধ করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। চুরাইবাড়ী থানায় ধর্মনগর এসডিএম অফিসের তত্ত্বাবধানে একটি টিম বসেছে যারা বহি রাজ্য থেকে আসছেন তাদের নথিপত্র দেখে ফরম ফিলাপ করছেন। 

অপরদিকে চেন্নাই থেকে আগত এম্বুলেন্স ড্রাইভার চুরাইবাড়ী থানায় এসেছিল। থানার বড় বাবুর রুমের চেয়ারে ও‌ বসেছে বলে জানা যায়। এমত অবস্থায় পুলিশ মহলে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। কড়া  সর্তকতা থাকলেও কিছু কিছু জায়গায় এখনও ঢিলেমি রয়ে গেছে। যে জায়গায় স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নাম লিপিবদ্ধ করা হয় সেই জায়গায় দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না। 



রাজ্য সরকার ত্রিপুরার প্রবেশদ্বারকে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা করুক নইলে কোন ভাবেই করোনার ঝুঁকি এড়ানো যাবে না।

কোন মন্তব্য নেই