Ad Code

Responsive Advertisement

এলাকার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সমস্যাকে অবহেলা : কদমতলা বিদ্যুৎ বিভাগের দপ্তর ঘেরাও করল চুড়াইবাড়িবাসী

সবুজ ত্রিপুরা, চুড়াইবাড়ি প্রতিনিধি, ২৯ জুন : রাজ্য জুড়ে বর্তমানে যে বিদ্যুৎ সমস্যা রয়েছে তা থেকে পরিত্রাণ পাচ্ছে না কদমতলা বিদ্যুৎ বিভাগ এলাকার চুরাইবাড়ির বাসিন্দারা বিগত ৩/৪ মাস ধরে চুরাইবাড়িতে ঘনঘন লোডশেডিং, বিদ্যুৎ বিভ্রাট, স্বল্প বৃষ্টি হলেই বিদ্যুৎ চলে যাওয়া সহ নানা সমস্যা রয়েছে এই গরমের মৌসুমে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের যন্ত্রণায় এক প্রকার অতিষ্ঠ চুড়াইবাড়িবাসি২৪ ঘন্টার ভিতরে মাত্র ৮ ঘন্টা চুরাইবাড়ি বিস্তীর্ণ এলাকায় বিদ্যুৎ থাকে
ত্রিপুরার প্রবেশদ্বার চুরাইবাড়িতে একটি থানা, ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কের ও ত্রিপুরা গ্রামীণ ব্যাঙ্কের শাখাদ্বয়, পোস্ট অফিস শাখা এবং স্থানীয় স্কুল সহ সরকারী দপ্তরগুলিতে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে কাজকর্ম যেমন লাটে উঠেছে তেমনি বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ বিদ্যুৎ না থাকায় তীব্র দাবদাহে অতিষ্ঠ অথচ কদমতলা বিদ্যুৎ বিভাগ প্রতিনিয়ত তালবাহানা করে যাচ্ছেবিদ্যুৎ বিভাগের টেলিফোন কাজ করে না, অধিকাংশ সময়ে বিদ্যুৎ দপ্তরের ফোন ব্যস্ত অথবা অকার্যকর থাকেবলতে গেলে কর্তব্যের গাফিলতি তো আছেই বিদ্যুৎ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে চুড়াইবাড়িবাসী কদমতলা বিদ্যুৎ বিভাগের ম্যানেজার অমিত দত্তকে কদমতলা বিদ্যুৎ অফিসের ভেতর ঘেরাও করে রাখে কদমতলা বিদ্যুৎ দপ্তরে এসডিও ছুটিতে থাকায় স্থানীয় লোকজন উনাকে বিদ্যুতের বিষয়ে প্রশ্ন করতে থাকেযেহেতু অমিত দত্ত চুরাইবারি ফিডারের ম্যানেজার তাই উনার কাছেই বিদ্যুৎ না থাকার জবাব দিহি চায় উত্তেজিত জনতা এদিকে জনতার প্রশ্নবাণে হুক লাইন বাবুরূপে খ্যাত অমিত দত্ত কিছুটা বিপাকে পড়ে যান অবশেষে এক মাসের ভিতরে বিদ্যুৎ সমস্যা নিবারণ করবেন তা আশ্বাস দিলে স্থানীয় জনতা উনাকে ঘেরাও মুক্ত করে স্থানীয় জনতা একটি লিখিত অভিযোগও ফিডারের ম্যানেজার অর্থাৎ হুকলাইন বাবুর হাতে তুলে দেন
বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধানের জন্য কদমতলা বিদ্যুৎ বিভাগে একটি বৈঠকও করা হবে স্থানীয় এলাকার প্রতিনিধিদের নিয়ে এমনটা জানা গেছে। তবে স্থানীয়দের ক্ষোভ রয়েছে চুরাইবারি ফিডারের ম্যানেজার অমিত দত্তের উপরে এদিকে  চুরাইবাড়িবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘ ৩/৪ মাস ধরে চুরাইবারি বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে প্রচণ্ড বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছে স্থানীয় জনগণ বারবার ফিডারের ম্যানেজার অমিত দত্ত সহ কদমতলা বিদ্যুৎ অফিসে জানিয়েও কোন সুরাহা হয়নি অবশেষে আজ ধৈর্য্যের বাঁধ ভেঙে কদমতলা বিদ্যুৎ অফিসে এসে এক প্রতিবাদ সাব্যস্ত করেন চুরাইবারি এলাকার জনগণ উনাদের দাবি ছিল বিদ্যুতের সমস্যা নিরসন করতে হবেফিডারের ম্যানেজারদের হাতে লিখিত অভিযোগও দেওয়া হয় চুরাইবারি বাসির পক্ষ থেকে তারপর চুরাইবারি ফিডারের ফিডার ম্যানেজার অমিত দত্ত উনাদেরকে আশ্বাস দেন যে, ১ মাসের ভেতর বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সমস্যা দূরীকরণ করা হবে ম্যানেজারের আশ্বাস পেয়ে যদিও তারা আশ্বস্ত হন তবে তাদের বক্তব্য, যদি এক মাসের ভেতর এই সমস্যা সমাধান না হয়, তাহলে চুরাইবাড়িবাসী মিলে বৃহত্তর আন্দোলন সংগঠিত করবেন
স্থানীয় জনগণের আরো অভিযোগ, যদিও রাজ্যে লোডশেডিং বন্ধ করা হয়েছে কিন্তু চুড়াইবাড়ি এলাকায় ২৪ ঘন্টার ভেতর মাত্র ৮ ঘন্টা বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকে এমনকি কদমতলা প্রেমতলা রানিবাড়ি, বড়গোল, তারকপুর  সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকলেও কি অদৃশ্য কারণে চুরাইবারি বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে  বিদ্যুৎ বিভ্রাট তাই স্থানীয় জনগণের দাবি চুরাইবারি বাসীর দিকে বিদ্যুৎ দপ্তর পক্ষপাত আচরণ করছে পাশাপাশি চুড়াইবাড়িবাসীর পক্ষ থেকে চুরাইবারি ফিডারের ম্যানেজার তথা হুকলাইন বাবু অমিত দত্তকে অন্যত্র বদলির জোরালো দাবি উঠছেএখন দেখার বিষয় সংশ্লিষ্ট দপ্তর চুরাইবাড়ির বেহাল বিদ্যুৎ পরিষেবা উন্নত করার দিকে কতটুকু দৃষ্টিপাত করে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu