Ad Code

Responsive Advertisement

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রীর ৪ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদেরকে আয়ুষ্মান ভারত –প্রধানমন্ত্রী জন-আরোগ্য যোজনায় সামিল হওয়ার আহ্বান



সবুজ ত্রিপুরা, সংবাদমাধ্যম, ৬ জুন : কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দায়িত্ব গ্রহণের অব্যবহিত পরই বিভাগীয় মন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন আয়ুষ্মান ভারত – প্রধানমন্ত্রী জন-আরোগ্য যোজনায় সামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সহ দিল্লি, ওড়িশা ও তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রীদের চিঠি পাঠিয়েছেন। এই চিঠির মধ্য দিয়ে অনুরোধ জানানোর পাশাপাশি ডঃ হর্ষ বর্ধন ব্যক্তিগতভাবে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী শ্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী শ্রী নবীন পট্টনায়েক, পশ্চিমবঙ্গের শ্রীমতী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী শ্রী কে চন্দ্রশেখর রাও-এর সঙ্গে কথাও বলেছেন।

তিনটি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল, আয়ুষ্মান ভারত – প্রধানমন্ত্রী জন-আরোগ্য যোজনা রূপায়ণে এখনও সামিল না হওয়ার প্রসঙ্গে ডঃ হর্ষ বর্ধন বলেন, দেশের বঞ্চিত ও পিছিয়ে পড়া মানুষের কাছে আয়ুষ্মান ভারত কর্মসূচির মতো সুচিন্তিত উদ্যোগের সুফল পৌঁছে দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, এই প্রকল্পের সুযোগ-সুবিধা যাতে যোগ্য প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়, তার জন্য তিনি বাকি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে বোঝানোর প্রচেষ্টা চালাবেন।

চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী লিখেছেন, স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু প্রক্রিয়ার দরুণ এবং বিপুল সংখ্যক মানুষের কাছে সহজে পৌঁছে দেওয়ার দিক থেকে এই কর্মসূচি ৩২টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গ্রহণ করেছে। এর ফলে, কোটি কোটি মানুষ আর্থিক দিক থেকে সুরক্ষা পাচ্ছেন। বাকি তিনটি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে এই প্রকল্পের সামিল হওয়ার আবেদন জানিয়ে ডঃ হর্ষ বর্ধন জোর দিয়ে বলেন, এর ফলে না কেবল রাজ্যগুলি উপকৃত হবে, বরং এই কর্মসূচি রূপায়ণে কোন অতিরিক্ত খরচ হবে না। স্বাভাবিকভাবে দরিদ্র মানুষের কাছে স্বাস্থ্য পরিষেবার সুবিধা পৌঁছে যাবে। একইসঙ্গে, সকলের জন্য সমান স্বাস্থ্য পরিষেবা সুনিশ্চিত হবে।
রাজ্যগুলি তাদের নিজস্ব কর্মসূচির সঙ্গে আয়ুষ্মান ভারতকে অন্তর্ভুক্ত করার ক্ষেত্রে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সবরকম সহায়তা ও সহযোগিতা পাবে বলেও ডঃ হর্ষ বর্ধন আশ্বাস দেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Close Menu