HeadLogo

ফনি ঘুর্ণিঝড় ত্রাণ কার্যের জন্য ভারতীয় নৌ সেনা উচ্চ সতর্কতায়

সবুজ ত্রিপুরা, সংবাদমাধ্যম, ৩০ এপ্রিল : বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ পূর্ব ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ পশ্চিম এলাকায় অবস্থিত ঘূর্ণিঝড় “ফনি’ আরও তীব্রতর হচ্ছে৷ ২৯ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে বিকেল ৫:৫০ মিনিট নাগাদ সময় থেকে এটি তামিলনাডু রাজ্যের রাজধানী চেন্নাই থেকে ৭৭০ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থান করছে৷ ইস্টার্ন নেভাল কমান্ড (ইএনসি)র ধারণা, এরজন্য উচ্চস্থরীয় মানবিক সহায়তামূলক প্রস্তুতি নেওয়া আবশ্যকবিশাখাপত্তনম ও চেন্নাইস্থিত ভারতীয় নৌ বাহিনীর জাহাজ দুর্গ এলাকা থেকে লোকজনদের সরিয়ে নিতেএবং চিকিৎসা ব্যবস্থা সহ অন্যান্য সহায়তা অর্থাৎ মানবিক সাহায্য ত্রাণ (Humanitarian Aid Distress Relief বা HADR) নিয়ে প্রস্তুত রয়েছে

এই জাহাজগুলিতে অতিরিক্ত চালক, চিকিৎসক, রাবারের নৌকা এবং ত্রাণ উপাদান সামগ্রী অর্থাৎ খাদ্য, তাঁবু, জামাকাপড়, ওষুধ, কম্বল ইত্যাদি পর্যাপ্ত পরিমাণে মজুত করা হয়েছে নৌ বিমান ঘাঁটি আরাকোন্নামে আইএনএস রাজালি, তামিলনাডু এবং অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনমে আইএনএস ডেগায় নৌ-বাহিনীর হেলিকপ্টারকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে পুনর্বাসন, হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার এবং দুর্গত মানুষের মধ্যে আকাশ থেকে ত্রাণ সামগ্রী সরবরাহ করার প্রয়োজনে
এই ঘূর্ণিঝড়ের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যঃ-
তারিখ/ভারতীয় সময়
অবস্থান (অক্ষাংশ-উত্তর/দ্রাঘিমাংশ- পূর্ব)
ভূপৃষ্ঠে সর্বোচ্চ যে পরিমাণ গতিতে বায়ু প্রবাহিত হবে (কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা)
ঘূর্ণিঝড়ের প্রকারভেদ
৩০.০৪.১৯/সকাল ৫-৩০
১১.৭/৮৬.
১২০-১৩০ থেকে ১৪৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
৩০.০৪.১৯/ বেলা ১১টা ৩০
১২.৫/৮৫.৯
১৩০-১৪০ থেকে ১৫৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
৩০.০৪.১৯/ বিকেল ৫টা ৩০
১৩.১/৮৫.৩
১৪০-১৫০ থেকে ১৬৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
৩০.০৪.১৯/ রাত ১১টা ৩০
১৩.৫/৮৪.৭
১৫০-১৬০ থেকে ১৭৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০১.০৫.১৯/সকাল ৫টা ৩০
১৩.৮/৮৪.৩
১৬০-১৭০ থেকে ১৮৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০১.০৫.১৯/বিকেল ৫টা ৩০
১৪.৪/৮৪.০
১৬৫-১৭৫ থেকে ১৯০
অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০২.০৫.১৯/সকাল ৫টা ৩০
১৫.৪/৮৪.০
১৭০-১৮০ থেকে ২০০
অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০২.০৫.১৯/বিকেল ৫টা ৩০
১৬.৭/৮৪.৩
১৭০-১৮০ থেকে ২০০
অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০৩.০৫.১৯/সকাল ৫টা ৩০
১৮.০/৮৪.৮
১৭০-১৮০ থেকে ২০০
অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০৩.০৫.১৯/বিকেল ৫টা ৩০
১৯.২/৮৫.৪
১৬০-১৭০ থেকে ১৯০
অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০৪.০৫.১৯/সকাল ৫টা ৩০
২০.৩/৮৬.৩
১৪০-১৫০ থেকে ১৬৫
তীব্র ঘূর্ণিঝড়
০৪.০৫.১৯/বিকেল ৫টা ৩০
২১.৪/৮৭.৩
১২৫-১৩৫ থেকে ১৫০
প্রবল ঘূর্ণিঝড়
০৫.০৫.১৯/সকাল ৫টা ৩০
২২.৫/৮৮.৪
৯০-১০০ থেকে ১১০
প্রবল ঘূর্ণিঝড়
সতর্কবার্তা : -
বৃষ্টিপাতজনিত সতর্কবার্তা
আগামী ২৪ ঘন্টায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবার সম্ভাবনা রয়েছে তামিলনাডুর উত্তর উপকূলে এবং অন্ধ্রপ্রদেশের দক্ষিণ উপকূলের কিছু জায়গায়।

২রা মে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ ও দক্ষিণ ওডিশা উপকূলের কিছু জায়গায়। ৩রা এবং ৪ঠা মে ওডিশা উপকূল এবং অন্ধ্রপ্রদেশের উত্তর উপকূলবর্তী এলাকায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। ৩রা এবং ৪ঠা মে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলাগুলির কিছু জায়গায় ভারী বৃষ্টি এবং বেশিরভাগ জায়গায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।
বায়ুপ্রবাহের সতর্কবার্তা
বঙ্গোপসাগরে দক্ষিণ-পূর্ব এবং সংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলে ঘন্টায় ১০০ – ১১০ থেকে ১২৫ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ঝড়ের তীব্রতা আজ সকাল থেকে ১২০-১৩০ থেকে ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে। উত্তর তামিলানাডুর পুদুচেরী এবং দক্ষিণ অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে বাতাসের গতিবেগ ১৬০-১৭০ থেকে ১৯০ কিলোমিটার বেগে বয়ে যাবে। আজ সন্ধ্যাবেলায় উত্তর তামিলনাড়ু পুদুচেরী এবং দক্ষিণ  অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলে পরবর্তী
২৪ ঘন্টায় ৫০-৬০ কিমি বেগে ঝড় বয়ে যাবে। ২রা মে থেকে উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওডিশা উপকূলে ঘন্টায় ৪০-৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৩রা মে বায়ুর গতিবেগ বৃদ্ধি পেয়ে পরবর্তী ২৪ ঘন্টায় ৬০-৭০ থেকে ৮৫ কিলোমিটার হতে পারে। পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে ২রা মে ঘন্টায় ৪০-৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার, ৩রা মে ঘন্টায় ৬০-৭০ থেকে ৮৫ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 

সমুদ্র পরিস্থিতি
বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ-পূর্ব এবং সংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে সমুদ্র উত্তাল থাকবে। পয়লা থেকে ৩রা মে পর্যন্ত উত্তর তামিলনাডু, পুদুচেরী এবং দক্ষিণ অন্ধ্রপ্রদেশ, ওডিশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে আর ২রা থেকে ৪ঠা মে পর্যন্ত উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে এই পরিস্থিতি অব্যাহত থাকবে।
মৎস্যজীবীদের উদ্দেশে সতর্কবার্তা
পয়লা থেকে ৩রা মে মৎস্যজীবীদের বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ-পূর্ব এবং সংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যে সমস্ত মৎস্যজীবী মাঝ সমুদ্রে চলে গেছেন, তাঁদের উপকূলে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।
 ইএনসি নিবিড় ভাবে বঙ্গোপসাগরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে চলেছে এবং রণতরীর চালকরা তামিলনাডু ও পুদুচেরি সাগর এলাকা (এফওটিএনএ) এবং অন্ধ্রপ্রদেশ উড়িষ্যার নৌ বাহিনীর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা প্রয়োজনীয় ত্রাণ ও উদ্ধার কার্য নিয়ে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রেখে চলেছে সংশ্লিষ্ট রাজ্য প্রশাসনের সাথে



কোন মন্তব্য নেই