HeadLogo

রিয়ার অ্যাডমিরাল সঞ্জয় জসজিত সিং ওয়েস্টার্ন ফ্লিট কমান্ডার হিসাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন


সবুজ ত্রিপুরা, সংবাদমাধ্যম, ২৫ মার্চ : মুম্বাইস্থিত নৌবাহিনীর পোতাঙ্গনে একটি মনোমুগ্ধকর প্যারেড অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গত ২২ মার্চ ২০১৯ রিয়ার অ্যাডমিরাল সঞ্জয় জসজিত সিং এনএম পশ্চিম বহরের দায়িত্ব নিলেন ৷ ভারতীয় নৌবাহিনীর “তরোয়াল”, তাঁর হাতে তুলে দেন রিয়ার অ্যাডমিরাল এভিএসএম, এনএম এমএ হাম্পিহোলি।


রিয়ার অ্যাডমিরাল সঞ্জয় জসজিত সিং ভারতীয় নৌবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন ১৯৮৬ সালে এবং খাদকাসলা জাতীয় প্রতিরক্ষা একাডেমীর প্রাক্তন ছাত্র ছিলেন৷ ন্যাভিগেশন ও ডাইরেকশনে একজন বিশেষজ্ঞ তিনি৷ কর্মজীবনে নির্দেশ,  প্রশিক্ষণ এবং কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে একটি পরিসীমা ধরে রেখেছেন তিনি৷  সমুদ্র নির্দেশক নিয়োগের ক্ষেত্রে এএসডাব্লিউএ এবং ইউএইবি-কন্ট্রোল ফ্রেগেট তারগিরি তার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, যার জন্য তাঁকে নৌ সেনা পদক এবং মাল্টি রোল ফ্রিগেট ত্রিশূল সম্মানে ভূষিত করা হয়েছিল। অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্ষেত্র ছিল লোক্যাল ওয়ার্কআপ টিম(ওয়েস্ট)এর অফিসার ইনচার্জ এর দায়িত্ব, ইরানে ইন্ডিয়ান নেভালের দায়িত্ব, জয়েন্ট ডাইরেক্টর অব পার্সোনাল, নেভাল অপারেশনের প্রিন্সিপাল ডাইরেক্টর এবং আইএইচকিউ এমওডি(এন)এর স্ট্র্যাটেজি, কনসেপ্ট এবং ট্র্যান্সফরমেশনের প্রিন্সিপাল ডাইরেক্টর এর দায়িত্ব৷ ফ্ল্যাগ রেঙ্ক এর পদোন্নতিকরণের আগে তিনি নৌবাহিনীর সহকারী চীফ (কমিউনিকেশন স্পেস এন্ড নেটওয়ার্ক সেন্টি্রক অপারেশন) এবং সি ট্রেনিং এর ফ্ল্যাগ অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন


২০০৯ সালে ভারতীয় নৌ-বাহিনীর সামুদ্রিক মতবাদের খসড়া রচনা, সামুদ্রিক নিরাপত্তা কৌশল এবং রূপান্তর কৌশলগত পথনির্দেশিকার জন্য ২০১৫ সালে শ্রেষ্টত্বের সম্মান লাভ করেছিলেন৷ সামরিক বিষয়ের একজন সফল ছাত্র হিসাবে তিনি বহু স্নাতকোত্তর ডিগ্রিও লাভ করেছিলেন, যারমধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য ছিল প্রতিরক্ষায় এমএসসি, এমফিল এবং মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ, লন্ডন কিংস কলেজ থেকে ডিফেন্স স্টাডিজে এমএ, এমএ(ইতিহাস), এমফিল(পল) এবং মুম্বাই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে পিএইচডি৷
 

২৭ মার্চ ২০১৯ রিয়ার এডমিরাল এমএ হাম্পিহোলি যাচ্ছেন নতুনদিল্লির নেভাল অপারেশনের আইস এডমিরাল আইএইচকিউ এমওডি(এন) এর ডাইরেক্টর জেনারেল পদে৷ রিয়ার এডমিরাল হাম্পিহোলির অধীনে ওয়েস্টার্ন ফ্লিট বহু কর্মক্ষম স্থাপনা এবং বহুবিদ অনুশীলন,  সামুদ্রিক নিরাপত্তা সুদৃঢ়করন এবং সামুদ্রিক প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করা এবং সামুদ্রিক বাধা দূর করা হয়েছে, যার জন্যে তাঁকে সম্প্রতি অতি বিশিষ্ট সেবা মেডেল পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছিল৷


কোন মন্তব্য নেই