HeadLogo

ঊনকোটি জেলার কুমারঘাটে অনুষ্ঠিত হলো বিপর্যয় মোকাবিলায় এক আগাম প্রস্তুতি সভা


সবুজ ত্রিপুরা, সংবাদমাধ্যম, ৬ মার্চ : বিপর্যয় মোকাবিলায় কিভাবে আগাম সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন এবং দুর্যোগ পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতির হ্রাস কিভাবে করা যায় – এই বিশয়ের উপর গতকাল কুমারঘাট মহকুমা প্রশাসনের উদ্যোগে পঞ্চায়েত রাজ ট্রেইনিং ইনস্টিটিউটে মহকুমাভিত্তিক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। উল্লেখ্য, গত বছর ঊনকোটি জেলার বিভিন্ন অঞ্চলগুলোর মধ্যে কুমারঘাট মহকুমাতে যে বন্যা হয়েছিলো, সেই অভিজ্ঞতাকে স্মরণে রেখে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সমাজসেবী শ্রী অনিমেষ সিন্‌হা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কুমারঘাটের মহকুমাশাসক শ্রী সন্দীপ চক্রবর্তী ও বিভিন্ন দপ্তরের মহকুমা স্তরের আধিকারিকগণ ।


          সভার প্রারম্ভিক ভাষণে মহকুমাশাসক শ্রী চক্রবর্তী গত বছরের বন্যা ও তার ক্ষয়ক্ষতি, বন্যা মোকাবিলায় প্রশাসনের অভিজ্ঞতার কথা সভায় তুলে ধরেন। আগামীদিনে এই প্রকার প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সংঘঠিত হলে এর ফলে হওয়া ক্ষয়ক্ষতি হ্রাস করার লক্ষ্যে স্বেচ্ছাসেবকদের টিম গঠন করে রাখার পাশাপাশি কে কোথায় কিভাবে কিরূপ দায়িত্ব পালন করবে, তার একটি রূপরেখাও তিনি সভায় তুলে ধরেন। সোভায় কুমারঘাট ব্লকের বি ডি ও শ্রী মিঠুন দাস চৌধুরী বিপর্যয়ের পর দুর্গতদের সাহায্যার্থে স্বেচ্ছাসেবকদের তালিকায় মহিলাদের নামও রাখার উপর গুরুত্ব দেন। তিনি এই সকল বিপর্যইয় পরবর্তী দুর্গতদের খাদ্যের যোগান সুচারুভাবে করতে এগে থেকেই মহকুমায় জোন বা বিভাগগুলো ভাগ করে কিছু দোকানের তালিকা ঠিক করে রাখতে বলেন, যেখান থেকে সহজেই তাদেরকে খাদ্যের যোগান দয়া সম্ভব হবে।


          এছাড়াও সভায় আলোচনায় অংশ নেন আসাম রাইফেলস্‌, অগ্নিনির্বাপক, পানীয় জল ও স্বাস্থ্যবিধি ইত্যাদি দপ্তরের প্রতিনিধিগণ এবং সমাজসেবী শ্রী মনোজ পাল চৌধুরী ও সেন্টার হাউজের ইনচার্জগণ।



কোন মন্তব্য নেই