HeadLogo

নিজামুদ্দিন থেকে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি বদরপুরে, আতঙ্কে ত্রিপুরাবাসী


সবুজ ত্রিপুরাচুরাইবাড়ি প্রতিনিধি, ০১ এপ্রিল : পার্শ্ববর্তী রাজ্য অসমের করিমগঞ্জ জেলায় ধরা পড়ল প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি। তার বয়স ৫২ বছর বলে জানা গেছে।



             আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি করিমগঞ্জ জেলার বদরপুরের শ্রীগৌরী হাচানপুর এলাকায়। গত ৫ মার্চ তিনি তাঁর দুই ছেলেকে সাথে নিয়ে দিল্লিতে জামা মসজিদ ও নিজামুদ্দিনে গিয়েছিলেন। ১০ মার্চ তিনি গৌহাটির হাতীগাওঁ আসেন এবং সেখান থেকে ১৩ মার্চ রাজধানী এক্সপ্রেসে বদরপুর আসেন।  এরপর গত ২৩ মার্চ ওই ব্যক্তি ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে বদরপুরের শ্রীগৌরী প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি হলে, সেখান থেকে ওই ব্যক্তিকে ক্যান্সার হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। ক্যান্সার হাসপাতালের চিকিৎসক করোনা টেস্টের জন্য অনুরোধ করলে ওই ব্যক্তি তা না মেনে বাড়িতে চলে আসেন।




           ২৯ মার্চ শারীরিক অসুস্থতা বেড়ে যাওয়াতে পুনরায় রাত্রিবেলা হাসপাতালে গেলে তাকে শিলচর মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়, যেখানে সোমবার ও মঙ্গলবার তিনটি পরীক্ষার পর তাঁর করোনা ভাইরাস পজিটিভ পাওয়া যায়। বর্তমানে শিলচর মেডিকেল কলেজের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই ব্যক্তি। আক্রান্ত ব্যক্তির শ্রীগৌরী এলাকায় একটি মাদ্রাসা রয়েছে। বর্তমানে করিমগঞ্জ জেলার স্বাস্থ্য দপ্তর ওই ব্যক্তির পরিবারের ওপর ৬ জন সদস্যকে কচুয়াদাম মডেল হাসপাতালে কোয়ারান্টাইনে প্রেরণ করেছে। পাশাপাশি ওই ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস পজিটিভ পাওয়ার পূর্বে যে সকল ব্যক্তি ও চিকিৎসক ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষাও করা হবে।তাদের শরীরেও পজিটিভ ধরা পড়ে কিনা তা নিয়ে আতঙ্কিত করিমগঞ্জবাসী।




             এই ঘটনার পর থেকে উত্তর জেলার ত্রিপুরা-অসম সীমান্তে চুরাইবারি ও কদমতলা থানা প্রশাসনের কড়া নজরদারির দাবি উঠছে। যদিও বিকল্প জাতীয় সড়ক সহ ত্রিপুরা অসম সংযোগী ২ টি সড়ক পুরোপুরি সিল করে দিয়ে কেবল পন্যবাহী লরি ও জরুরিকালীন যান চলাচলের জন্য ৮ নং আসাম আগরতলা জাতীয় সড়ক উন্মুক্ত রয়েছে কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে।


কোন মন্তব্য নেই