HeadLogo

ধর্মনগর রেল দপ্তরের টিটিই-র জঘন্য ঘটনার নিন্দা করলো এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন, জানালো ইউনিয়নকে জড়ানোর রাজনৈতিক চক্রান্ত



সবুজ ত্রিপুরা, ধর্মনগর প্রতিনিধি, ২৫ এপ্রিল : অভিযোগের উপর অভিযোগ। ধর্মনগর রেল কলোনিতে কিছু দিন পূর্বে ঘটে যাওয়া নরকিয় ঘটনা থেকে এবার অন্য আরেক ঘটনার উদ্ঘাটন হলো। 
এখানে উল্লেখ্য, গত ১৯ এপ্রিল ধর্মনগর রেল কলোনি এলাকায় এক রেল কর্মচারীর স্ত্রী ও তার মেয়ের স্নানের আপত্তিকর ছবি ক্যামেরা বন্দী করার অপরাধে আরেক রেল কর্মী তথা টিটিই সন্তোষ কুমারকে হাতেনাতে ধরে ফেলেছিল এলাকার জনগণ সহ মহিলা মোর্চার সদস্যারা। পরবর্তীতে নাবালিকার পরিবারের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে  অভিযুক্ত রেলের টিটিই সন্তোষ কুমারকে জি আর পুলিশ ধর্মনগর আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। তবে মূল বিষয় হচ্ছে, যে দিন এলাকাবাসী ও মহিলা মোর্চার তৎপরতায় অভিযুক্ত সন্তোষ কুমারকে জিআর পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল ঐ দিন ঐ নাবালিকার পিতা অভিযোগ করেছিলেন যে সন্তোষ কুমারের এই নরকিয় ঘটনাটি প্রশাসনের নজরে না নেওয়ার জন্য রেলওয়ে এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সম্পাদক পরিমল দে নাবালিকার পিতাকে ১লক্ষ টাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন । এমনকি এ বিষয়ের চরম নিন্দা জানিয়ে ছিলেন রাজ্য মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন বর্ণালী গোস্বামী ।


কিন্তু  এবার রেলওয়ে এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সম্পাদক পরিমল দে এই বিষয়ে প্রেস বিবৃতি দিয়ে পরিস্কার জানালেন। উনার বিরুদ্ধে নাবালিকার পিতার আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। টিটিই  সন্তোষ কুমারের এমন নরকিয় ঘটনাকে কোন সময় এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন মেনে নেয় না। এমন জঘন্য ঘটনার চরম নিন্দা জানান তিনি। 


পাশাপাশি তিনি জানান যেহেতু উনি এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সম্পাদক তাই রেলওয়ে কর্মচারীদের দ্বারা গঠিত বিরোধী সংগঠন তাদের রাজনৈতিক আকাঙ্খা চরিতার্থ করার জন্য ওনার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ পরিকল্পিত ভাবেই এই অভিযোগ এনেছেন। আগামী কিছু দিন পরই তাদের সাংঘঠনিক নির্বাচন তাই এই চক্রান্ত বলেই ওনার অভিমত।
ছবি ঃ স্বরূপ ঘোষ

কোন মন্তব্য নেই