HeadLogo

ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ে ঘোষণা প্রতিযোগিতা ২০২০





সবুজ ত্রিপুরা, বিশেষ প্রতিনিধি, ২৪ অক্টোবর : গতকাল ২৩ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে উত্তর জেলার ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ের কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয় জেলাভিত্তিক দেশপ্রেম ও জাতির গঠন এর উপর ঘোষণা প্রতিযোগিতা ২০২০ বা Declamation Contest 2020। এর মূল বিষয় ছিল: “সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস” ।
উদ্ভাবনী সামাজিক সংস্থা-র সম্পাদক শ্রী রনদ্বীপ রুদ্র পাল তাঁর বক্তব্য রাখছেন। ছবি : নিজস্ব।
  উত্তর ত্রিপুরা নেহরু যুব কেন্দ্রের উদ্যোগে ও উদ্ভাবনী সামাজিক সংস্থার ব্যবস্থাপনায় সকাল ১১.০০ টা নাগাদ এই অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন ধর্মনগর পুরপরিষদের সম্মানীয়া সদস্যা শ্রীমতি নবনীতা আচার্য্য মহোদয়া । অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জাতীয় যুব পুরস্কারপ্রাপ্ত শ্রী নিরঞ্জন নাথ মহাশয়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদ্ভাবনী সামাজিক সংস্থা-র সম্পাদক শ্রী রনদ্বীপ রুদ্র পাল । অনুষ্ঠানে উদ্দেশ্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন উত্তর ত্রিপুরা নেহরু যুব কেন্দ্রের কোষাধ্যক্ষা শ্রীমতি শর্মিষ্ঠা ভট্টাচার্য মহোদয়া ।
প্রথম স্থানাধিকারী শ্রী গোবিন্দ দে-কে পুরস্কৃত করছেন অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক শ্রী অনিল কুমার সিন্‌হা। ছবি : নিজস্ব।
এই প্রতিযোগিতামুলক অনুষ্ঠানে ব্লকস্তর থেকে মোট ৯ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে, হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায় তাদের বক্তব্য সকলের সামনে রাখেন । প্রতিযোগিতার বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক শ্রী অনিল কুমার সিন্‌হা মহোদয়, মহাবিদ্যালয়ের এনএসএস ইউনিটের কর্মসূচী আধিকারিক শ্রী চন্দনময় পাল মহোদয় এবং ত্রিপুরা রাষ্ট্রভাষা প্রচার সমিতির অধ্যক্ষ শ্রী শুভ্রাংশু দাম মহোদয় ।
 তিনজন বিজয়ী শ্রী মিঠন নাথ ও শ্রী প্রসেনজিত দেবনাথ এবং গোবিদ দে (বাম থেকে ডানে)। ছবি : নিজস্ব।
উক্ত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে দশদা ব্লকের শ্রী গোবিন্দ দে, দ্বিতীয় স্থান কদমতলা ব্লকের শ্রী মিঠন নাথ ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন পানিসাগর ব্লকের শ্রী প্রসেনজিত দেবনাথ । প্রতিযোগিদের প্রত্যেককে পুরস্কাররাশি হিসাবে প্রথমজনকে ৫০০০ টাকা, দ্বিতীয়জনকে ২০০০ টাকা, তৃতীয়জনকে ১০০০ টাকাসহ মানপত্র ও পদক প্রদান করা হয় । জেলা ভিত্তিক প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকারী আগামী মাসে অনুষ্ঠিত রাজ্যভিত্তিক অনুষ্ঠানে যোগ দেবে। এরপর সভাপতির বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে সমাপ্তি ঘোষণা হয় ।




কোন মন্তব্য নেই